সপ্তাহ ৩৯

আপনার শরীরে পরিবর্তন

changes in the body
কি হোতে পারে
এইসময় আপনি তলপেটে চাপ অনুভব করছেন , অনেক সময় কোমরে পিঠে খুব যন্ত্রনা হচ্ছে আবার অনেক সময় শরীরে  হটাৎ নতুন কর্মশক্তির সঞ্চার অনুভব করছেন !
জরায়ুর মুখে এইসময় প্রচুর স্রাবের সম্ভাবনা থাকে , অনেক সময় সাদা ঘন পদার্থ লক্ষ্য করতে পারছেন , আপনার শরীর প্রসবের জন্য প্রস্তুত এটাই তার লক্ষণ , আপনি এখন আসন্ন প্রসবের চিন্তায় উৎকণ্ঠিত , উদগ্রীব !

গর্ভে সন্তান বৃদ্ধি

Honeydew melon - Week 39 size guide
কত টা বাড়লো
আপনার শিশুটি এখন একটি বড়োসড়ো তরমুজের মতো ৪৮ সেন্টিমিটার লম্বা , ওজন প্রায় ৩ কিলো |

আপনার গর্ভে সন্তান বিকাশ

Pregnancy weekly guide - baby size
বিকাশ
আপনার শিশু এখন জন্ম নেওয়ার জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত , গর্ভাবস্থায় তার ওজন ও দৈর্ঘ্য যতটা হওয়া প্রয়োজন তা সে পুরো করেছে , যদিও তার স্নায়ু তন্ত্র এবং মস্তিষ্ক এখনো দ্রুত বিকশিত হচ্ছে প্রতি দিন , শিশুটির চোখের পাতা হয়েছে |

শরীর আর মনের যত্ন

প্রসবের লক্ষণ - সপ্তাহ ৩৯
পরামর্শ (টিপস)
 প্রসবের প্রতিটি লক্ষণ সম্পর্কে জেনে রাখুন , যেমন -
      • জল ভাঙা ,
      • পেটখারাপ , বমিভাব , এগুলি অনেক সময় প্রসবের পূর্ব লক্ষণ হতে পারে
      • অকস্মাৎ সক্রিয় হয়ে পড়ার তাগিদ
      • স্রাবের আধিক্য
      • অল্প রক্ত স্রাব
যে বিষয়গুলি আপনার খেয়াল রাখতে হবে :
      • শিশুর নড়াচড়া , পা ছোঁড়া
      • প্রসব যন্ত্রনা কিভাবে বুঝবেন ও মাপবেন শিখে রাখুন
      • নিঃস্বাস প্রশ্বাস নিয়ন্ত্রণ করে কিভাবে ব্যাথার মুখে নিজেকে সামলে রাখবেন জেনে নিন
      • অনেক ক্ষেত্রে ( বিশেষ করে ভারতে ) ডাক্তার নির্দিষ্ট তারিখের আগেই প্রসব প্ররোচিত করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন বা অনেক সময় ৪০ সপ্তাহের পর করে থাকেন

ডাক্তারের পরামর্শ নিন

Pregnancy weekly guide - ask your doctor
জিজ্ঞেষ করেন
  1. আমি পেটে মাঝে মাঝে টান বা সংকোচন অনুভব করছি এগুলি কি প্রসবের লক্ষণ ? কখন বুঝবো আমার হাসপাতালে যাওয়া উচিত ?
  2. কোন লক্ষণগুলি দেখলে তক্ষুনি ডাক্তার কে জানানো উচিত?
  3. প্রসবের সময় কতটা ব্যাথা হতে পারে ? ব্যাথা কম রাখতে কি ওষুধ নেওয়া যায় ?
  4. প্রসবের সময় কিছু খাওয়া যায় ? জল খেতে পারবো ?
  5. কতদিন হাসপাতালে থাকতে হবে ? আমার সাথে বাড়ির কেউ থাকতে পারে কি ?
  6. আমার শিশুর জন্য হাসপাতালে কি কি জিনিস নিয়ে আসব ?

কর্ম তালিকা

প্রসবের লক্ষণ - সপ্তাহ ৩৯
পয়েন্টস
  1.  আপনার শিশুর নড়াচড়া করার একটি চার্ট রাখুন
  2. নিজেকে শান্ত রাখতে নিঃস্বাস-প্রশ্বাস নিয়ন্ত্রণের পদ্ধতি শিখে নিন
  3. প্রসবের ঠিক আগে ব্যাথার মাত্রা , কতক্ষন বাদে বাদে হচ্ছে , সংকোচন বা পেটে চাপের তীব্রতা বুঝতে এবং মাপতে শিখে রাখুন
  4. যে ব্যাগ হাসপাতালে নিয়ে যাবেন সেটি গুছিয়ে বেরোবার দরজার পাশে রাখুন
  5. দরকারি সব ফোন নম্বর লিখে আপনার হাতের কাছে রাখুন

আপনার মনে কী এই প্রশ্ন এসেছে ?

প্রত্যেক শিশুর জন্মের ৭২ ঘন্টার মধ্যে একটি সর্বাঙ্গীন পরীক্ষা হয়ে থাকে , যদি কোনো অসুবিধে থাকে তাহলে যাতে সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসা শুরু করা যায় , বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই কোনো অসুবিধে থাকে না , জন্মের পর শিশুর চোখ , হৃদযন্ত্র হাত পায়ের সঞ্চালন ইত্যাদি পরীক্ষা করে দেখা হাসপাতালের  সাধারণ নিয়মের মধ্যে পড়ে |

 

প্রসবের পর প্রস্রাবের সময় অনেকে জ্বালাভাব অনুভব করতে পারে , অনেক সময় ঠিক মতো পেট পরিষ্কার হয় না , কোষ্ঠকাঠিন্য হতে পারে , বেশি করে জল পান করলে এই অসুবিধেগুলি চলে যাবে কয়েকদিনের মধ্যে প্রসবের পর পর রক্তস্রাব হয় বেশ কিছুদিন , প্রথম কয়েকদিন ভারী রক্তস্রাব হলেও ধীরে ধীরে তা কমতে থাকবে এবং বন্ধ হওয়ার আগে এটির রং খয়েরি হবে | অনেক সময় মাসিক হওয়ার সময় যেমন পেট ব্যাথা হয় তেমন ও হতে পারে |
 বেশির ভাগ স্বাভাবিক প্রসবে কোনো সেলাই পরে না , যেসব ক্ষেত্রে শিশু কে বাইরে আনতে অল্প কাটাকুটি করতে হয় সে ক্ষেত্রে সেলাই পড়া স্বাভাবিক |

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।