আপনার শরীরে পরিবর্তন

changes in the body
কি হোতে পারে
এসময় আপনার ঘুম কম , মনে দুশ্চিন্তা বা উদ্বেগ এবং স্তনে তরল নিঃসরণ হওয়াটা স্বাভাবিক | এসময় পেট খারাপ হতে পারে , আপনার এখন খুব অস্থির লাগছে , এতদিন অপেক্ষার পর আপনি এখন শিশুটি কে জন্ম দিতে উদগ্রীব !
আপনার শরীর ও এই বিশেষ সময়টির জন্য প্রস্তুত , আপনার জরায়ুর মুখ প্রসারিত হতে শুরু করেছে শিশুর জন্মের প্রস্তুতিতে , আপনার শিশু এখন যে কোনো দিন জন্ম নিতে পারে , বেশিরভাগ গর্ভবতী মহিলাই ৩৮ থেকে ৪২ সপ্তাহে শিশুর জন্ম দিয়ে থাকেন |

গর্ভে সন্তান বৃদ্ধি

গর্ভাবস্থায় পা ফোলা - সপ্তাহ ৩৮
কত টা বাড়লো
শিশু এখন একটি তরমুজের সমান , লম্বায় ৪৮ সেন্টিমিটার এবং ওজন প্রায় ২ কেজি ৮০০ গ্রাম |

আপনার গর্ভে সন্তান বিকাশ

Pregnancy weekly guide - baby size
বিকাশ
 শিশু এখন জন্ম নেওয়ার জন্য তৈরী হচ্ছে , শিশুর স্বর তন্ত্ৰী বা কণ্ঠস্বর নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র টি সক্রিয় , সে এখন কাঁদতে পারে , শিশুটির স্নায়ুতন্ত্র তার বিকাশের শেষ পর্যায় , শিশুটি জরায়ু থলির ভিতরের জল খেয়ে এসময় প্রথম বার অন্ত্র সক্রিয় করে  মলত্যাগ(bowel movement) করবে |

শরীর আর মনের যত্ন

গর্ভাবস্থায় পা ফোলা - সপ্তাহ ৩৮
পরামর্শ (টিপস)
  •  যখনই আপনার কোনো দুশ্চিন্তা হবে আপনার বা শিশুর নিরাপত্তা সম্পর্কে , শিশুর নড়াচড়া অস্বাভাবিক মনে হলে সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তার বা হাসপাতালে যোগাযোগ করুন |
  • শিশুর জন্মের নির্ধারিত সময় বা দিন দু একদিন পিছিয়ে গেলে চিন্তিত হবেন না , কেবল ৫% শিশুরই নির্ধারিত তারিখে জন্ম হয়েছে বলে জানা গেছে |
  • এসময় আপনার মন খুব অস্থির লাগলে নিজেকে ব্যস্ত রাখতে প্রিয় বই বা পত্রিকা পড়ুন বা যাতে আপনার মন শান্ত থাকে এমন কোনো কাজ করুন|
  • ঢিলে ঢালা , আরামদায়ক জামা পড়ুন |
  • হাঁটতে যান , সহজ এবং ধীর গতি তে চলা ফেরা করুন |গোড়ালি বা হাঁটুর পরিশ্রম যেন না হয় , অল্প , ধীর হাঁটা চলা শিশুকে তার সঠিক অবস্থানে আনতে সাহায্য করবে |
  • ধ্যান , মনোনিবেশ অভ্যাস করুন , এগুলি শরীর ও মনে স্থিরতা আনবে , আরাম দেবে , প্রসবের সময় ব্যাথা সহ্য করতে সাহায্য করবে |
  • আপনার পক্ষে এইসময় বিশ্রাম , আরাম এবং ভালো চিন্তা ভাবনা করা উচিত হবে |

ডাক্তারের পরামর্শ নিন

Pregnancy weekly guide - ask your doctor
জিজ্ঞেষ করেন
  1. আমার এখনো জল ভাঙেনি , এতে কোনো ক্ষতি হবে না তো?
  2. আমার রক্তচাপ খুব বেশি , এর জন্য আমার বা আমার শিশুর প্রসবের সময় বা ঠিক তার পরেই কোনো অসুবিধে হতে পারে কি ?
  3. আমার গর্ভাবস্থা ৪০ সপ্তাহ পেড়িয়েও যদি প্রসব না হয় তখন কি করবো ?
  4. সিজারিয়ান পদ্ধতি টি কি ? ( Caesarean section)

কর্ম তালিকা

গর্ভাবস্থায় পা ফোলা - সপ্তাহ ৩৮
পয়েন্টস
  1. শিশু কতবার পা ছুড়ছে খেয়াল করুন , গুনতে চেষ্টা করুন
  2. হাসপাতালে নিয়ে যাবার জন্য ব্যাগ গুছানো আছে কিনা দেখে নিন
  3. প্রসবপূর্ব সময়ে দরকারি ভিটামিন ও ফলিক অ্যাসিড পরিপূরক নিয়মিত নিতে থাকুন
  4. প্রসবের পরে ডাক্তারি পরামর্শ গ্রহণের সময় নিয়ে রাখুন
  5. শিশুর জন্মের খবর কাকে কাকে দিতে হবে তার একটি লিস্ট করে রাখুন
  6. হাসপাতালে ঢোকার পথ , প্রসব কক্ষের অবস্থান , হাসপাতালের সময়ের বাইরে কি ভাবে বা কোন দিকে প্রবেশ দ্বার খোলা থাকবে জেনে রাখুন

আপনার মনে কী এই প্রশ্ন এসেছে ?

এইসময় পেট খারাপ হয় , এইভাবে শিশু যাতে সহজে জন্ম গ্রহণ করতে পারে তার জন্য শরীরে যথেষ্ট জায়গা করে দেওয়া হচ্ছে , আপনার শিশু এখন যেকোন দিন জন্ম নিতে প্রস্তুত , প্রচুর জল খাবেন , যাতে শরীরে জলের মাত্রা পর্যাপ্ত থাকে |

পা ফুলে যাওয়া গর্ভবতী মহিলাদের ক্ষেত্রে প্রায়ই হয়ে থাকে ,
২২ সপ্তাহের পর থেকে ৭৫% মহিলার ক্ষেত্রে এটা দেখা গেছে
অল্প আধটু পায়ের ফোলাতে চিন্তার কিছু নেই , তবে অতিরিক্ত ফোলা , বা রক্তচাপ বেশি থাকলে অবশ্যই ডাক্তারের কাছে পরামর্শ নিন |

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।