এ সময় কি হয়

changes in the body
আপনার শরীর ও মন
এসময় আপনার ওজন খুব দ্রুত বাড়ছে , প্রতি সপ্তাহে ৪০০ গ্রাম করে আপনার ওজন বেড়ে চলেছে | আপনার চলন এখন হাঁস বা পেঙ্গুইনের মতো হেলেদুলে ! এসময় আপনি থেকে থেকে পেতে সংকোচন বা চাপ অনুভব করছেন , আপনার জরায়ু কখনো শক্ত হয়ে উঠছে আবার হালকা হচ্ছে , আপনি আপনার অবস্থান পরিবর্তন করলে এই সংকোচন ও হালকা হয়ে যাচ্ছে | তলপেটে এ সময় ব্যাথা অনুভব করতে পারেন , চিন্তার কিছু নেই, এটা স্বাভাবিক , এতে আপনার বা শিশুর কোনো ক্ষতি হবে না | এসময় আপনি অদ্ভুত রকমের অনেক স্বপ্ন দেখছেন !

গর্ভে সন্তান বৃদ্ধি

ডাক্তার কে যোগাযোগ করবেন - সপ্তাহ ৩২
কত টা বাড়লো
আপনার শিশু এখন প্রায় একটি ডাবের সমান , প্রায় ৪০ সেন্টিমিটার লম্বা এবং ওজন ১ কেজি ৫০০ গ্রাম |

শিশুর ক্রমবিকাশ

Pregnancy weekly guide - baby size
বিকাশ
শিশুর বিকাশ : ফুসফুস ছাড়া আর বাকি প্রত্যেকটি অঙ্গ প্রত্যঙ্গর বিকাশ এখন সম্পূর্ণ | শিশুটি এখন প্রস্রাব নিঃসরণে সক্ষম , বাইরের জগতে বাস করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে শিশুটি গিলতে , নিঃস্বাশ নিতে , হাত পা চালনা করতে এবং ধীরে ধীরে মাথা নিচের দিকে ঘোরাতে চেষ্টা করছে , তবে এখনো অনেক সময় আছে , এ নিয়ে চিন্তার কিছু নেই !

শরীর আর মনের যত্ন

ডাক্তার কে যোগাযোগ করবেন - সপ্তাহ ৩২
আপনার শিশু ও নিজের যত্ন নেবেন কিভাবে
  • মাঝে মাঝে বিশ্রাম নিন , এতে আপনি বেশি ক্লান্ত হয়ে পড়বেন না
  • এসময় আপনার খিদে কমে যেতে পারেন লক্ষ্য রাখবেন যে প্রয়োজনীয় পুষ্টি আপনার শরীর যেন পায় , মাঝে মাঝে অল্প পরিমানে খাবার খাওয়া চালু রাখুন
  • প্রসবের লক্ষণ গুলি সম্পর্কে জেনে রাখুন , আপনি নিশ্চিন্ত থাকতে পারেন যে এসময় শিশুর পক্ষে জন্মানোর কোনো তেমন সমস্যা হয় না , খুব সহজেই সে বাইরের জগতের সাথে মানিয়ে নিয়ে স্বাস্থ্যপূর্ণ জীবনযাপন করতে পারে |
  • এ সময় প্রসবের যে লক্ষণ গুলি সম্পর্কে আপনার সচেতন থাকা দরকার সেগুলি হলো - রক্তক্ষরণ , পেট ব্যাথা বা মোচড়ানো , সংকোচন , এবং জলীয় নিঃসরণ |
  • শিশুর জন্মের পর আপনি কেমন বোধ করবেন এবং কি প্রস্তুতি সে সময় নেওয়া উচিত সে বিষয় চিন্তা ভাবনা করুন
    1. আপনার কিছু সেলাই পড়তে পারে কিছু প্রয়োজনীয়
    2. সার্জিকাল কাটা ছেঁড়া র জন্য
    3. বাথরুম এ যাওয়া
    4. প্রস্রাব নিয়ন্ত্রণ
    5. রক্তক্ষরণ সম্ভাবনা

ডাক্তারের পরামর্শ নিন

Pregnancy weekly guide - ask your doctor
ডাক্তার কে করবেন এমন কিছু প্রশ্ন
  1. প্রসবের লক্ষণ গুলি কি ?
  2. আমার শিশুর অবস্থান কি ঠিকমতো ?
  3. শিশুর জন্মের পরে কি ভিটামিন k ইনজেকশন নেওয়া দরকার আমার ?
  4. আমি পেটে সংকোচন অনুভব করছি , প্রসব কি আসন্ন ?
  5. গর্ভাবস্থায় ব্যাথার জন্য আমি কি ব্যবস্থা নিতে পারি ?

গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয়

ডাক্তার কে যোগাযোগ করবেন - সপ্তাহ ৩২
কর্ম তালিকা
  1. ভিটামিন ও ফলিক অ্যাসিড পরিপূরক নিয়মিত নিতে থাকুন |
  2. নিয়মিত প্রসব পূর্ব ডাক্তারি পরীক্ষা ও পরামর্শ নিতে ভুলবেন না |
  3. আপনার জিজ্ঞাস্য গুলি গুছিয়ে লিখে রাখুন ও ডাক্তার কে জানান |
  4. যে বিশেষ লক্ষণগুলি সম্পর্কে সচেতন থাকা দরকার সেগুলি জেনে রাখুন |
  5. হাসপাতাল এ যে ব্যাগ নিয়ে যাবেন তা গুছিয়ে রাখুন|

আপনার থাকতে পারে এমন কিছু প্রশ্ন

আপনার শিশুর মাথা নিচের দিকে থাকলে জন্মের প্রক্রিয়া সবচেয়ে সহজ হবে | শিশুর এই অবস্থান একদম শেষের দিকে , প্রসবের অল্প আগে হওয়ার সম্ভাবনা , অনেক সময় ৩৬ সপ্তাহে ও যখন শিশু এই ভাবে না থাকে , ডাক্তার চেষ্টা করতে পারেন তাকে ঠিক অবস্থানে নিয়ে আসার | অনেক সময় শিশু অন্য ভাবে বা অন্য দিক করে ও জন্ম নিতে পারে |

  •  যদি আপনার কোনো এক পায়ের গোড়ালির কাছে পেশী লাল হয়ে ফুলে ওঠে বা ব্যাথা হতে থাকে
  • যদি বুকে ব্যাথা হয় , বা নিঃস্বাশের কষ্ট হয়
  • যদি আপনার রক্তক্ষরণ হয় , আপনার অবসন্ন লাগে
  • জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন বা হৃদযন্ত্রর গতি হটাৎ বেড়ে যায়
  • জ্বর ও সঙ্গে পেটে ব্যাথা
  • মাথা ব্যাথা সঙ্গে চোখের দৃষ্টি ঝাপসা , বমি
 - উপরোক্ত যেকোনো লক্ষণ দেখা দিলে সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তার কে যোগাযোগ করুন |

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।